রায় কি আপনারা লিখে দিয়েছেন, প্রশ্ন রিজভীর

বিএনপি
Typography
  • Smaller Small Medium Big Bigger
  • Default Helvetica Segoe Georgia Times

রায় কি আপনারা লিখে দিয়েছেন, প্রশ্ন রিজভীর

অনলাইন ডেস্ক: ৮ ফেব্রুয়ারিকে কেন্দ্র করে মিছিল, মিটিং, সভা সমাবেশ নিষিদ্ধ করেছেন ঢাকা মোট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি)। তাহলে কি রায় আপনারা লিখে দিয়েছেন? প্রশ্ন তোলেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

মঙ্গলবার (০৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রাজধানীর নয়াপল্টন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী বলেন, সংবাদ মাধ্যমে জানতে পেরেছি, ডিএমপি একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে, ৮ তারিখে ভোর থেকে সভা-সমাবেশ নিষিদ্ধ। কেন, কিসের জন্য। তাহলে নিশ্চয় আপনারা আদালতের উপর এমন কিছু করেছেন যে তার প্রতিক্রিয়া হবে ভেবে আপনারা এ ধরনের একটা পদক্ষেপ নিয়েছেন। দেশকে জুলুমের বন্দিশালা তৈরি করেছেন।

৮ ফেব্রুয়ারি মামলার রায়কে কেন্দ্র করে সারাদেশে ১২শ’ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, কেন এই গ্রেফতার? কিসের জন্য? কেন এই পুলিশি মহড়া? কেন এই পুলিশি তাণ্ডব? কেন দেশের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিসহ বিএনপির শতশত নেতাকর্মী আটক? তাহলে রায় কি আপনারা লিখে দিয়েছেন?

বিএনপি চেয়ারপারসনের আকাশছোয়া জনপ্রিয়তা দেখে আপনি ইর্ষান্বিত হয়ে মিথ্যা মামলার জাল নথি তৈরি করে তাকে বন্দি করার পরিকল্পনা করছেন। তাকে বন্দি করে ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে দেশের গণতন্ত্রকে কঙ্কালসার করেছেন। যে কারণে বিরোধী দলকে ধূলার সঙ্গে মিশিয়ে দেয়ার পরিকল্পনা করেছেন।

একের পর এক গ্রেফতার আবার গ্রেফতারের পর না বলা। মনে হচ্ছে, এদেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিশিরাতের এক ভয়াল দুঃস্বপ্ন হয়ে আবির্ভূত হয়েছে। তিনি কত নিষ্ঠুর হতে পারেন। নিজের দেশের বিরোধীদলকে নিশ্চিহ্ন করতে সেই ২৫ মার্চের কালো রাতের মতো এবং ৯ মাসের যে গণহত্যার সেটার পুনরাবৃত্তি করছে সরকার। তারপরও কি শেষ রক্ষা হবে? জনগণের হৃদয়ে যে ক্ষোভ, ঘৃণা দানা বেঁধেছে আপনি আইনের দ্বারা বন্ধ করতে পারবেন না। মানুষ তার প্রতিবাদ করবেই করবে।

সোহেলের সন্ধান পেতে রাষ্ট্রপতির হস্তক্ষেপ কামনা করে রিজভী বলেন, আমরা রাষ্ট্রপতি, পুলিশের ডিজি, র‌্যাব ও বিজিবির ডিজির কাছে আবেদন জানাচ্ছি বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা

Sign up via our free email subscription service to receive notifications when new information is available.