রিজার্ভ চুরি: অর্থ উদ্ধারে মামলা এপ্রিলে

অর্থনীতি
Typography
  • Smaller Small Medium Big Bigger
  • Default Helvetica Segoe Georgia Times

রিজার্ভ চুরি: অর্থ উদ্ধারে মামলা এপ্রিলে

অনলাইন ডেস্ক: রিজার্ভ থেকে চুরি হওয়া অর্থ উদ্ধার করতে এপ্রিলে ফিলিপিন্সের রিজল কমার্সিয়াল ব্যাংকিং করপোরেশনের (আরসিবিসি) বিরুদ্ধে মামলা করবে বাংলাদেশ ব্যাংক।
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত রোববার সাংবাদিকদের বলেন, “অর্থ উদ্ধারে আগেই আমরা আরসিবিসির বিরুদ্ধে ফৌজদারি মামলা করার সিদান্ত নিয়েছিলাম। আগামী এপ্রিলেই এ মামলা করা হবে।

“নিউ ইয়র্কের আদালতে এ মামলা করা হবে। এজন্য প্রয়োজনী রিপোর্ট সিআইডিকে তাড়াতাড়ি দিতে বলা হয়েছে।” বিকালে সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ে রিজার্ভ থেকে চুরি হওয়া অর্থ ফেরত আনা সংক্রান্ত এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা হয়। বৈঠক শেষে মুহিত সাংবাদিকদের বলেন, বৈঠকে চুরি যাওয়া রিজার্ভের অর্থ ফেরত আনতে মামলার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

“এ মামলায় ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্ককেও আমরা পার্টি করতে চাই।”

যুক্তরাষ্ট্রের এই সরকারি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ মামলায় পক্ষ হতে রাজি হয়েছে কি না জানতে চাইলে অর্থমন্ত্রী বলেন, “এখনও রাজি হয়নি। তবে এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর যোগাযোগ করছেন।”

২০১৬ সালের ৪ ফেব্রুয়ারির যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে (ফেড) রক্ষিত বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব থেকে ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি হয়। পাঁচটি সুইফট বার্তার মাধ্যমে চুরি হওয়া এ অর্থের মধ্যে শ্রীলঙ্কায় যাওয়া ২ কোটি ডলার ফেরত আসে। তবে ফিলিপিন্সে যাওয়া ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার জুয়ার টেবিল ঘুরে হাতবদল হয়। তার মধ্যে দেড় কোটি ডলার ফেরত এলেও বাকি অর্থ উদ্ধারে এখনও তেমন কোনো অগ্রগতি নেই।

এই অর্থ উদ্ধারের জন্যই আরসিবিসির বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

বিশ্বজুড়ে আলোড়ন তোলা এই সাইবার চুরির ঘটনায় বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন নেতৃত্বাধীন তদন্ত কমিটি অর্থমন্ত্রীর কাছে অনেক আগে প্রতিবেদন জমা দিলেও এ পর্যন্ত তা প্রকাশ করা হয়নি।