আত্মঘাতী গোলদাতা ফার্নান্দিনহোকে হত্যার হুমকি

খেলা
Typography
  • Smaller Small Medium Big Bigger
  • Default Helvetica Segoe Georgia Times

আত্মঘাতী গোলদাতা ফার্নান্দিনহোকে হত্যার হুমকি


আত্মঘাতী গোল। এটা অনেকটা কষ্টের। কারণ দলের জন্য বল ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজের অনিচ্ছা সত্ত্বেও নিজ দলের পোস্টে বল ঢুকিয়ে প্রতিপক্ষকে এগিয়ে দেয়া। আর কখনো কখনো এ গোলই দলের পরাজয়ের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। এমন একটি ভুলের জন্য আজ থেকে ঠিক ২৪ বছর আগে নিজের জীবন দিয়ে সে পাঠ চুকিয়েছিলেন আন্দ্রে এসকোবার। ১৯৯৪ বিশ্বকাপে যুক্তরাষ্ট্রের বিপক্ষে আত্মঘাতী গোলের জন্য দেশে ফেরার পরপরই গুলি করে হত্যা করা হয়েছিল কলম্বিয়ান তারকাকে। সে ইতিহাস আজও কাঁদায় ফুটবলবিশ্বকে।
দুর্দান্ত ফর্মে থেকেও বেলজিয়ামের কাছে হেরে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিয়েছে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ব্রাজিল। অথচ অপরাজিত থেকে বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন করেছিল ব্রাজিল। স্বাভাবিকভাবেই এবারের টুর্নামেন্টে তাই অন্যতম ফেভারিট ছিলে নেইমাররা। শুরুটা ভালই করেছিলেন তিতের ছেলেরা। কিন্তু বেলজিয়ামের কাছে হেরে সব শেষ। এ হারের জন্য অনেকে যেমন নেইমারকে দায়ী করেছেন, তেমনই আঙুল উঠেছে মিডফিল্ডার ফার্নান্দিনহোর দিকেও।
pran তার আত্মঘাতী গোলই সমস্ত সমীকরণ পালটে দিয়েছিল। তারপর থেকেই ব্রাজিল সমর্থকদের লাগাতার কটাক্ষের মুখে পড়তে হচ্ছে ম্যাঞ্চেস্টার সিটি তারকাকে। তাকে ও তার পরিবারকে বর্ণবিদ্বেষমূলক মন্তব্যে বিদ্ধ করা হয়েছে। এমনকী খুনের হুমকিও দেয়া হয়েছে তাকে।
আর এবার খুনের হুমকি দেয়া হল ফার্নান্দিনহোকে। ব্রাজিলীয় মিডিয়ায় আগেই জানিয়েছিলেন, যে কোনও পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে তৈরি তিনি। তবে ফার্নান্দিনহো-সহ গোটা সেলেকাও দলের পাশে দাঁড়িয়েছে ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন। সমর্থকদের কড়া ভাষায় নিন্দা করা হয়েছে। সেই সঙ্গে ফেডারেশনের অনুরোধ, এমন পরিস্থিতিতে প্রত্যেক দেশবাসীর দলের পাশে থাকাই উচিত।
তবে এবারের বিশ্বকাপে এটাই প্রথম প্রাণনাশের হুমকি নয়। এর আগে পেরুর ক্রিস্টিয়ার কেভা প্রাণনাশের হুমকি পেয়েছিলেন।